আজ সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টা পরিবহন ধর্মঘট চলছে

439

আজ রোববার  সারাদেশে ৪৮ ঘন্টা পরিবহন ধর্মঘট ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। জানাযায়, সংসদে পাস হওয়া সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা পরিবর্তনের দাবিতে আজ রবিবার সকাল ৬টা  থেকে দেশজুড়ে ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

শ্রমিক ফেডারেশনের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ১৯ সেপ্টেম্বর শুক্রবার জাতীয় সংসদে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ পাস হয়েছে। এ আইনে শ্রমিক স্বার্থ রক্ষা ও পরিপন্থী উভয় ধারাই রয়েছে। এতে সড়ক দুর্ঘটনাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করে আইন পাস করা হয়েছে। আইনে সড়ক দুর্ঘটনা মামলায় অপরাধী হলে ফাঁসির ঝুঁকি রয়েছে। এতে পরিবহন শ্রমিকরা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। ফলে তাদের পক্ষে যথাযথ পেশাগত দায়িত্ব পালন করা সম্ভব হচ্ছে না। এর কারণে আন্দোলন ছাড়া বিকল্প কোনো উপায় তাদের সামনে খোলা নেই।
এ আইনের সংশোধন ও পরিমার্জনের লক্ষে রবিবার সকাল ৬টা থেকে দেশজুড়ে ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করা হবে।
প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সড়ক দুর্ঘটনায় সব ধরনের মামলা জামিনযোগ্য করতে হবে। শ্রমিকদের অর্থদণ্ড ৫ লাখ টাকা করা যাবে না। সড়ক দুর্ঘটনা তদন্ত কমিটিতে শ্রমিক প্রতিনিধি রাখতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্সে শিক্ষাগত যোগ্যতা পঞ্চম শ্রেণী করতে হবে। ওয়েস্কেলে (ট্রাক ওজন স্কেল) জরিমানা কমানোসহ ৮টি দাবি উপস্থাপন করে।
এর আগে গত ৭ অক্টোবর জাতীয় সংসদে সদ্য পাস হওয়া সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনসহ ৭ দফা দাবিতে পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকা ধর্মঘট শুরু হয়েছিল। ঐসময় ৯ অক্টোবরে বিকেল ৪টায় সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের আশ্বাসে ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছিল ট্রাক পরিবহন শ্রমিকরা। ২৬ অক্টোবর কেরানীগঞ্জে ট্রাকচালক-শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক শ্রমিক নিহত হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবার একই দাবি নিয়ে ফুসে উঠেছে পরিবহন শ্রমিকরা এবং এ কর্মবিরতির ঘোষণা দেয়। এছাড়া গতকাল শনিবার এ দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দুপুর ২টা পরিবহন শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বিকেল ৩টা থেকে রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করেছে।