বিদেশি পর্যবেক্ষকদের বিষয়ে ইসিতে বৈঠক ২৫ নভেম্বর

332

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষকদের আনতে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ২৫ নভেম্বর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।ইউরোপীয় ইউনিয়ন নির্বাচন পর্যবেক্ষণে না আসার কথা জানানোর পর ইসি এ বৈঠকে বসছে। সোমবার বৈঠকের বিষয়ে আলোচনা করতে সিইসির সঙ্গে সাক্ষাত করেন পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক।এ বিষয়ে ইসির যুগ্ম সচিব (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামান আরটিভি অনলাইনকে জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবারও পর্যবেক্ষণে আসবে না বলে জানিয়েছে। অন্যদের পর্যবেক্ষণে আনতে করণীয় নির্ধারণে ২৫ নভেম্বর একটি বৈঠক হবে। এতে পররাষ্ট্র ও জনপ্রশাসন সচিব, পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ ইমিগ্রেশন সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত থাকবেন।সোমবার সিইসির সঙ্গে বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব সাংবাদিকদের জানান, আসন্ন নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষকদের বিষয়ে কথা বলতে এসেছিলাম। তাদের জন্য কমিশনের কী ব্যবস্থাপনা রয়েছে তা নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে।এ বিষয়ে আসাদুজ্জামান বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রী বিদেশি পর্যবেক্ষকদের নির্বাচন কমিশনের আয়োজন জানতে চেয়েছেন। তবে, কোন কোন দেশ থেকে কে বা কারা পর্যবেক্ষণে আসবেন বা কোন দেশ থেকে আসবেন না সেই বিষয়ে আজকে কোন আলোচনা হয়নি।ইসি কর্মকর্তারা জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়নই সবচেয়ে বেশি পর্যবেক্ষক পাঠায়। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে সহিংসতার কারণ দেখিয়ে সংস্থাটি প্রথম মুখ ফিরিয়ে নেয়। এরপর সংস্থাটির পথ ধরে অন্যরাও সে বছর নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আসেনি।  অথচ ২০০৮ ও ২০০১ সালের নির্বাচনে এই সংস্থাটিই সব থেকে বেশি পর্যবেক্ষক পাঠিয়েছিল।ইইউ না বলার কারণে কমিশন বিদেশি পর্যবেক্ষকদের আনতে জোড় প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। যদিও বিষয়টি নির্ভর করছে সংশ্লিষ্ট সংস্থার উপর। কেন না নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য বিদেশিদেরই আবেদন করতে হয়। কেউ আবেদন করলে যেনো সঙ্গে সঙ্গে সাড়া দিয়ে এ বিষয়ে তড়িৎ ব্যবস্থা নেওয়া হয় তা ঠিক করতেই মূলত উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকটি ডেকেছে কমিশন।সর্বশেষ ৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচনে মাত্র ৪ জন বিদেশি পর্যবেক্ষণ করে। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম সংসদ নির্বাচনে ৫৯৩ জন বিদেশি, ২০০১ সালে অষ্টম সংসদ নির্বাচনে ২২৫ জন বিদেশি, ১৯৯৬ সালে সপ্তম সংসদ নির্বাচনে বিদেশি ২৬৫ জন ও ১৯৯১ সালে অনুষ্ঠিত পঞ্চম সংসদ নির্বাচনে ৫৯ জন বিদেশি পর্যবেক্ষক নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে।এদিকে নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত ১১৮টি পর্যবেক্ষক সংস্থার সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠকে বসছে কমিশন। বৈঠকে সংস্থাগুলোর প্রধানদের নির্বাচনের বিভিন্ন দিক নিয়ে ব্রিফ করবেন ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে দেশি সংস্থাগুলোকে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য ২১ নভেম্বরের মধ্যে আবেদনও করতে বলেছে।ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনের ভোট হবে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, ২ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাই ও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন নির্ধারিত রয়েছে ৯ ডিসেম্বর