ক্যারিয়ারের ২০০তম ওয়ানডেতে ম্যাচ সেরা দলনেতা মাশরাফি

491

ক্যারিয়ারের ২০০তম ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নেমে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। তার অসাধারণ বোলিংয়েই উইন্ডিজকে স্বল্প রানে আটকে রেখে জয়ের ভিত পায় টাইগাররা। বাকি কাজ সারেন মুশফিক-লিটনরা। আজ রবিবার  ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুরে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ২০০তম ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন মাশরাফি। টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নেওয়া উইন্ডিজের তিন ব্যাটসম্যানকে তুলে নিয়ে উইন্ডিজকে ১৯৫ রানে আটকে রাখার পেছনে বড় ভূমিকা রাখেন পেসার মাশরাফি। উইন্ডিজ ইনিংসের ২১ ওভারে বল করতে এসে ওভারের চতুর্থ বলে ড্যারেন ব্র্যাভোকে তুলে নিয়ে প্রথম উইকেটের দেখা পান টাইগার দলপতি। এরপর উইন্ডিজ ওপেনার শাই হোপ আর উইন্ডিজ অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েলের উইকেটও তুলে নেন তিনি।

১০ ওভার বল করে মাত্র ৩০ রান খরচ করে ৩ উইকেট তুলে নেওয়া মাশরাফি ডট বল দিয়েছেন ৪১টি। তার সঙ্গে বাকিদের ভালো বোলিং মিলিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৯৫ রানেই থামে ক্যারিবীয়দের ইনিংস।

জবাবে মুশফিকুর রহিমের ফিফটি আর লিটন দাস (৪১) ও সাকিব আল হাসানের (৩০) ব্যাটে ভর করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪.৫ ওভার হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় টাইগাররা। দুর্দান্ত বোলিংয়ে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন মাশরাফি।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার হাতে নিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আমরা জানি ওয়েস্ট ইন্ডিজ এই ফরম্যাটে (ওয়ানডে) অনেক বিপজ্জনক দল। কিন্তু ছেলেরা খুব ভালো বল করেছে। এই পিচে রান করা এত সহজ নয়। লিটন দারুণ ব্যাটিং করেছে, সাকিব খুব দ্রুত রান তুলেছে, যা অনেক কাজে লেগেছে। কিন্তু আমি মনে করি মুশফিক ছিল ব্রিলিয়ান্ট, খুবই প্রফেশনাল। এখনো দলের অনেকটা পথ পাড়ি দেওয়া বাকি।’

আজকের ম্যাচে বিজয়ী দলের অধিনায়ক মাশরাফি ২০০ ম্যাচে ঝুলিতে পুরেছেন ২৫৫ উইকেট, যা বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ। আর অধিনায়ক হিসেবে ৬৮ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে মোট ৩৯টি জয় এনে দিলেন ‘ম্যাশ’