এলাকার উন্নয়ন ও মানুষের কল্যাণে সেবক হয়ে কাজ করতে চাই : আক্তারুজ্জামান বাবু

591

খুলনা জেলা প্রতিনিধি :

খুলনা-৬ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে একদিকে দেশের উন্নয়ন হয়, অপরদিকে সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়। বর্তমান সরকারের আমলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে উলে­খ করে তিনি বলেন, সারা দেশের ন্যায় নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছা-কয়রায়ও যথেষ্ট উন্নয়ন হয়েছে। তবে এ এলাকায় একদিকে এখনো অনেক সমস্যা রয়েছে। তেমনি অনেক ক্ষেত্রে উন্নয়ন করার প্রয়োজন রয়েছে। আমি দীর্ঘ সময় উপকূলীয় এ জনপদের মানুষের সাথে মিশে রয়েছি। এখানকার মানুষের সুখে-দুঃখে পাশে রয়েছি। আগামীতে নির্বাচিত হয়ে আমি এমপি হতে চাই না। নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন ও মানুষের কল্যাণে সেবক হয়ে কাজ করতে চাই। এলাকার বেশিরভাগ মানুষ নৌকা প্রতীকে সমর্থন করায় নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় ভেবে প্রতিপক্ষ স্বাধীনতা বিরোধী প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তারা নির্বাচনী প্রচারণায় জনসমর্থন না পাওয়ায় নির্বাচন বানচাল করতে নৌকা প্রতীকের নির্বাচন অফিসে বোমা বিস্ফোরন ও অগ্নি সংযোগ করছে। তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে এ ধরণের নাশকতামূলক কর্মকান্ডের সঠিক জবাব দিতে হবে। তিনি বুধবার বিকালে নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছার চাঁদখালী বাজার চত্ত¡রে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুনছুর আলী গাজীর সভাপতিত্বে ও আওয়ামী লীগনেতা জিএম ইকরামুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগনেতা আলহাজ্ব শেখ মনিরুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস, সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, এসএম আনিছুর রহমান, জেলা যুবলীগনেতা জসিম উদ্দীন বাবু, জেলা তাঁতী লীগনেতা শেখ সুমন আহম্মেদ, রাফেল হোসেন বাবু, আওয়ামী লীগনেতা এসএম আয়ুব আলী, আক্তারুজ্জামান সুজা, আমিনুল ইসলাম মাস্টার, কৃষ্ণপদ মন্ডল, গাজী মিজান, গাজী আব্দুল মাজেদ, আব্দুস সালাম কেরু, জার্মান প্রবাসী ইসমাইল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগনেতা মৃণাল কান্তি বাছাড়, সাবেক নেতা খায়রুল ইসলাম, সাবেক এমপি পুত্র হাসান রুমি, যুবলীগনেতা আব্দুল বারিক গাজী, নজরুল ইসলাম হিরা, আব্দুল হালিম, শাহাজাদা তুরাগ, মহিলা লীগনেত্রী ময়না বেগম ও ফাতেমাতুজ্জোহুরা রূপা।