ব্যালট আপনারাই ছাপাবেন, আগাম বলায় আপনাকে ধন্যবাদ : ফখরুল

438
নির্বাচনে ব্যালট পেপার ছাপানোর কথা বলছেন, সেটি তো আপনাদের কাজ। আপনাদের সেই ক্ষমতা আছে, আপনারাই সেটা করবেন। ব্যালট আপনারাই ছাপাবেন, আর সে কথা আগাম বলে দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। বললেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  বৃহস্পতিবার বিকেলে দলের চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে পেশাজীবীদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এ মন্তব্য করেন। বুধবার রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির বাসভবন সুধাসদন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে কয়েকটি জেলার সাথে নির্বাচনী জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, বিএনপি ভুয়া ব্যালট পেপার ছাপাচ্ছে। নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র ও দুরভিসন্ধি আছে তাদের। নির্বাচনের তিন-চারদিন আগে টাকা ছড়িয়ে তারা নাশকতা করতে পারে। বিএনপি মহাসচিব বলেন, ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু এ নির্বাচন এরই মধ্যে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। আমরা সব সময় মনে করেছি এ নির্বাচনের মাধ্যমে জাতি তাদের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাবে। একটি দিন তারা তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবে। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য।তিনি বলেন, নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে যে আশার আলো দেখা দিয়েছিল, সেটি জনগণ তিনটি নির্বাচনে গ্রহণ করেছিল। কিন্তু ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বুঝতে পারলো, জনগণের ভালোবাসার আস্থা তারা ধরে রাখতে পারবে না। তখনই একটি রায়ের মাধ্যমে সেটি বাতিল করে দিলো।  অথচ আদালতের রায়ে মতামত ছিল তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিধান রাখা যেতে পারে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী সেটি পাশ কাটিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বাতিল করে দিলো। ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। যতই ধানের শীষের জোয়ার উঠছে, ততই সরকার নতুন নতুন চক্রান্ত করছে। আমাদের অনেক প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করেছে। এক্ষেত্রে সরকার ব্যবহার করছে আদালতকে কিন্তু এরপরও আমরা দমে যাইনি।বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কথা বিএনপি রাখছে মন্তব্য করে ফখরুল ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার আগে বলে গেছেন জাতীয় ঐক্য গঠন করতে। সব রাজনৈতিক দল, মত, ধর্ম–বর্ণের মানুষকে নিয়ে ঐক্য করতে। বিএনপি খালেদা জিয়ার কথা পালন করেছে, জাতীয় ঐক্য গঠন করেছে, নির্বাচনে অংশ নিয়েছে।ফখরুল আরও বলেন, সংলাপে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন, তফসিল ঘোষণার পর আর কাউকে গ্রেপ্তার করা হবে না। কিন্তু তিনি তার কথা রাখেননি।