শাশুড়িকে শায়েস্তা করতে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলো পূত্র বধু

152

বগুড়ার শাজাহারপুরে ছেলে বউ ও শাশুড়ির পারিবারিক দ্বন্দ্বে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে পুলিশ ডেকে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার উপজেলার মাদলা হেলেঞ্চাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূ লাবনী আক্তারের (১৭) ফোন পেয়ে পুলিশ দ্রুত বাড়িতে গিয়ে জানতে পারে মারপিটের কোনও ঘটনা ঘটেনি। পুলিশ গিয়ে ফিরে আসে।

শাজাহানপুর থানার এসআই শাহজাহান আলী ও এলাকাবাসী জানান, বগুড়ার শাজাহানপুর মাদলা হেলেঞ্চাপাড়া গ্রামের আজিজার রহমানের ছেলে ট্রাকচালক মো. শাহীন প্রায় ১০ বছর আগে সারিয়াকান্দি উপজেলার লাবনী আক্তারকে (২৭) বিয়ে করেন। তাদের সংসারে দুই ছেলে-মেয়ে রয়েছে।

পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে লাবনীর সঙ্গে শাশুড়ি শাহেরা বেগমের মাঝে মাঝে ঝগড়া হয়। গতকাল বুধবার সকাল আটটার দিকে লাবনী আক্তার ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে অভিযোগ করেন, শাশুড়ি শাহেরা বেগম তাকে মারধর করেছেন।

দ্রুত ফোর্স নিয়ে মাদলা হেলেঞ্চাপাড়ার ওই বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, লাবনীকে শাশুড়ি সাহেরা মারধর করেনি। পারিবারিক ঝামেলা থেকে তাদের মধ্যে শুধু বাকবিতণ্ডা হয়েছে।

লাবনীর স্বামী শাহীন পুলিশকে জানান, তার স্ত্রী ও মায়ের মধ্যে পারিবারিক ঝামেলা হয়। বউয়ের পক্ষ নিলে মা ক্ষিপ্ত হন আবার মায়ের পক্ষ নিলে বউ ক্ষিপ্ত হন। এ নিয়ে তিনি খুব বিপদে আছেন।