আলীম ও ইষ্টার্ণ জুট মিলের শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের দাবিতে সড়কে লাল পতাকা মিছিল

69
মোঃ আল আমিন খান – সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার 
রাষ্ট্রায়ত্ব আলীম ও ইষ্টার্ণ জুট মিলের শ্রমিক কর্মচারীদের বকেয়া পাওনা পরিশোধসহ ৪দফার দাবীতে বৃহস্পতিবার সকালে মেন সড়কে লাল পতাকা মিছিল কর্মসুচি পালন করা হয়।খানজাহান আলী থানা জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন ও আলীম ও ইষ্টার্ণ জুট মিলের শ্রমিকদের দাবী আদায় আন্দোলন সংগ্রাম কমিটির পূর্বঘোষিত কর্মসুচির অংশ হিসাবে সকাল ১০টায় ইস্টার্ণ জুট মিলের গেট থেকে লাল পতাকা মিছিলটি শুরু হয়। মিছিলটি খুলনা যশোর মহাসড়কের আলীম জুট মিল ও আফিল জুট মিল সহ পার্শবর্তি গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলের দুই মিলের সর্বস্থরের শ্রমিক-কর্মচারীরা লাল পতাকা নিয়ে মিছিলে অংশ গ্রহন করে।

লাল পতাকা মিছিল পরবর্তি পথসভা খানজাহান আলী থানা জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ আমিরুল সরদারের সভাপতিত্বে এবং শ্রমিক নেতা মফিজুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টি খুলনা মহানগরের সভাপতি শেখ মফিদুল ইসলাম, প্লাটিনাম জুট মিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ফেডারেশনের নেতা কমরেড খলিলুর রহমান, আলীম জুট মিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ. রশীদ, আন্দোলন সংগ্রাম কমিটির যুগ্ন আহবায়ক মোঃ জাকির হোসেন সরদার, ইষ্টার্ণ জুট মিলের সভাপতি মো. আলাউদ্দিন, শ্রমিক নেতা মঞ্জু আকুঞ্জী, কামরুজ্জামান, আন্দোলন সংগ্রাম কমিটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। দুই মিলের শ্রমিক কর্মচারীদের সঞ্চয়পত্র প্রদান, শ্রমিকদের নামে মিথ্যা হয়রানীমূলক মামলার প্রত্যাহার করে মামলা জটিলতার সমাধান করে শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ, ২০১৩ সালের কর্মচারীদের গ্রাচুটি, পিএফসহ যাবতীয় বকেয়া পাওনা পরিশোধ এবং আলীম জুট মিলের শ্রমিকদের ৬৪ সপ্তাহের ও ইষ্টার্ণ জুট মিলের শ্রমিকদের ৬ সপ্তাহের বিল দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিশোধের দাবীতে লাল পতাকা মিছিল পরবর্তি পথসভায় বক্তারা আলীম জুট মিলের ডি.জি.এম এর নানা অনিয়মের কথা তুলে ধরে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তাকে প্রত্যাহারের দাবী জানান। পূর্ব ঘোষিত আন্দোলন কর্মসুচির অংশহিসাবে আগামী ২২ আগস্ট রবিার বিকাল ৩টায় আলীম জুট মিলের প্রধান ফটকের সামনে শ্রমিক জনসভা থেকে নতুন কর্মসুচি ঘোষনা করা হবে।