ইউপি নির্বাচনে যদি কেউ পেশি শক্তি ব্যবহার করে তাহলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে

19
মোঃ আল আমিন খান – সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার
সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচন-২০২১ উপলক্ষে পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসন ও নির্বাচন অফিস আয়োজিত প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা ও আচরণ-বিধি প্রতিপালন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদার বলেন, স্থানীয় সরকারের তৃণমূল পর্যায়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন হচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নিবাচনে প্রতিযোগীতা থাকবে কিন্তু সেটা হতে হবে পরিচ্ছন্ন, মারামারি কিংবা বিশৃঙ্খলা কখনো কাম্য নয়। জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ সকল পক্ষ চাই একটি সুষ্ঠু নির্বাচন। সরকারেরও কঠোর নির্দেশনা রয়েছে নিরপেক্ষ নির্বাচন করার। অতএব একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করার জন্য প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে সব ধরণের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। নির্বাচনে আমরা রেফারির ভূমিকায় রয়েছি। আমাদের কাছে লাল, সবুজ, হলুদসহ সব ধরণের কার্ড রয়েছে। নির্বাচনে যে যেমন আচারণ করবে তার বিরুদ্ধে তেমন কার্ড ব্যবহার করা হবে। প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে ডিসি বলেন জনগনের ভোটে নির্বাচিত হওয়ার মর্যাদা অনেক বেশি অতএব আপনারা কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করবেন না। নিজে অপকর্ম করে অন্যের উপর দায় চাপানোর চেষ্টা করবেন না। আইন সবার জন্য সমান নির্বাচনে যদি কেউ পেশি শক্তি ব্যবহার করার চেষ্টা করেন তাহলে তা কঠোর ভাবে প্রতিহত করা হবে। নির্বাচনে পর্যাপ্ত র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ মোতায়েন থাকবে, নিরাপত্তার কোন ঘাটতি থাকবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন সবাই আচারণ বিধি মেনে প্রচার প্রচারনা করুন, প্রশ্ন বিদ্ধ হয় কেউ এমন কিছু করবেন না। নির্বাচনে ভিন্ন কিছু করার সুযোগ থাকবেনা এবং কেউ যদি এধরণের চিন্তা করে থাকে তাহলে তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলার পরামর্শ দেন ডিসি। সকলের সহযোগীতায় অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগ খুলনার উপ-পরিচালক ইকবাল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট পুলক কুমার ঘোষ, সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার এম মাজহারুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান আনেয়ার ইকবাল মন্টু, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ডি-সার্কেল সাইফুল ইসলাম, সহকরী কমিশনার ভুমি শাহরিয়ার হক ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার কামাল উদ্দীন আহমেদ। উপস্থিত ছিলেন ৯ ইউপি নির্বাচনের সকল চেয়ারম্যান প্রার্থী। এর আগে ডিসি ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণে ব্রিফিং প্রদান করেন।