নিজড়া ইউনিয়নবাসীর উদ্দেশে চেয়ারম্যান সরদার আজিজের বার্তা

69
ডেক্স রিপোর্ট
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নিজড়া ইউনিয়নবাসীর  দুইবারের বিজয়ী চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান সরদার তাঁর ব্যক্তি ফেসবুক আইডিতে নির্বাচিত এলাকার জনগনের উদ্দেশে আবেগঘন ও স্মতিময় কার্যক্রমের বিষয় নিয়ে একটি পোস্ট শেয়ার করেন। যেখানে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বরত দীর্ঘ কর্মময় জীবনের বিষয় তুলে ধরেন। এছাড়া নৌকার মনোনয়ন পেলে আবারও নির্বাচনে লড়বেন বলে তিনি জানান।
তাঁর ফেসবুক আইডির স্টাটাস হুবুহু তুলে ধরা হলো :  
“প্রিয় নিজড়া ইউনিয়নবাসী, আসসালামু আলাইকুম৷
আজ আমার চেয়ারম্যান হিসেবে দ্বায়িত্ব পালনের দ্বিতীয় বারের মত পাঁচ বছর সম্পূর্ণ হলো৷ করোনা মহামারীর কারনে যেহেতু নতুন নির্বাচন পিছিয়ে গেছে। এই কারণে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত সরকারি নির্বাহী আদেশ অনুযায়ী আগামী নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত দ্বায়িত্ব পালন করে যেতে হবে।
প্রিয় নিজড়া ইউনিয়নবাসী
দায়িত্ব পালনকালে আমি আমার নেতা জননেতা শেখ ফজলুল করিম সেলিম ভাই (এম.পি) আমার ওপর যে আস্থা রেখে আমাকে মনোনয়ন দেওয়ার সুপারিশ করেছিলেন এবং আমাকে নৌকা মার্কা দিয়ে যে দায়িত্ব দিয়েছেন আমি তার শতভাগ মর্যাদা রাখার চেষ্টা করেছি। যদি সফল হয়ে থাকি তার সব কৃতিত্ব আমার নেতা শেখ সেলিম ভাইয়ের আর আপনারা যারা আমাকে এতদিন বিনা স্বার্থে নিরঙ্কুশ সমর্থন দিয়ে আসছেন তাদের।
প্রিয় ইউনিয়নবাসী
বিগত দিনে আমি আমার বিবেকমত নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করেছি। নির্বাচনের আগে অনেকে আমার প্রতিপক্ষ হয়তো ছিলো কিন্তু নির্বাচনের পরে সবাই আমার পক্ষের বলে আমি মনে করে এসেছি। নিজড়া ইউনিয়নে অন্তত একটা সুষ্ঠু বিচার ও নিরপেক্ষ সমাজ ব্যবস্থা গড়ে উঠুক আমি তার আপ্রাণ চেষ্টা করেছি৷ কখনো কোন পক্ষ নিয়ে নোংরামি করিনি৷
আমি কারো বিরুদ্ধে কোন মামলা দেওয়াইনি, কাউকে অযথা হয়রানি করিনি, কোন দল উপদল সৃষ্টি করিনি।
আমার পরিষদ থেকে সকল সেবা কোন কিছুর বিনিময় ছাড়াই দিয়েছি৷
সরকারি সকল ত্রান আমার পরিষদ থেকে সুষম বন্টন হয়েছে। নিজড়া ইউনিয়ন থেকে সরকারিভাবে বয়স্কভাতা, বিধোবা ভাতা, প্রতিবন্ধি ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা, ভিজিডি কার্ড, ওএমএস কার্ড অগভীর নলকূপ, পারিবারিক সোলার বিদ্যুৎ, ঘাটলা নির্মাণ ইত্যাদি নিতে কোনপ্রকার অবৈধ অর্থ লাগে নি৷
সরকারি এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর দলীয় সকল প্রোগ্রাম আমি আমার পরিষদে পালন করেছি।
প্রিয় ইউনিয়নবাসী
আমি আমার সাধ্যমত চেষ্টা করেছি আপনাদের পাশে থাকতে। আমার কাছে কেউ সাহায্য, সহযোগিতা চাইতে এসে খালি হাতে ফেরত যায়নি। সরকারি বা নিজের পকেট থেকে কিছু না কিছু একটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আপনারা ভালো বলতে পারবেন আমি কেমন মানুষ ।সবাইতো নিজের ঢোল নিজে পেটায়। আমিও তার ব্যতিক্রম নই। তবে বিগত বছর গুলিতে আমি কখনও কাজে গাফিলতি করিনি। আমি আমার ইউনিয়নের সবাইকে আপন করে নিতে চেয়েছি। আমার পরিষদের সকল সদস্যদের নিয়ে একটা সুখী পরিবার গঠন করতে চেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ আমি পেরেছি হয়তো।
প্রিয় ইউনিয়নবাসী
আমার বিপক্ষের অনেকে আমাকে অনেকভাবে বিপদে ফেলতে চেয়েছে। কখনও সফলও হয়তো একটু হয়েছে কখনও হতে পারেনি। কিন্তু আমি আমার বিবেকের কাছে সৎ থেকেছি। আমি কখনো কারো বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র করিনি। আমি কোন প্রতিশোধ নিতে চেষ্টাও করিনি।
আমি জানি ক্ষমতা কারো চিরকাল স্থায়ী থাকেনা। আমি কখনও ক্ষমতার বড়াই করিনি। একদম সাদামাটা স্বাভাবিক জীবন যাপন করার চেষ্টা করেছি। আমার কাছে ধনী-গরিব, অশিক্ষিত-শিক্ষিত, ছোট কর্মজীবী, বড় অফিসার, ভ্যান চালক, অটে-মাহিন্দ্র ড্রাইভার, জেলে-মুটে-মজুর সবাই সমান ছিলো। মানুষকে কাছে টানার চেষ্টা করেছি নিরবচ্ছিন্নভাবে।
প্রিয় ইউনিয়নবাসী
আমি ধন্য আপনাদের ভালোবাসা পেয়ে। ভালোবাসার এই ঋণ শোধ হওয়ার নয়। আমার জীবনের স্মরণীয় সময় ছিলো গত ১০ বছরে আপনাদেরকে সাথে নিয়ে চলা। তবে আমার হারানোর পাল্লাটাও কম ভারী নয়। আমার জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানুষ আমার বড়ভাই সাবেক চেয়ারম্যান সরদার রবিউল ইসলামের আকষ্মিক অকাল মৃত্যুর কারনে একটা অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে আপনাদের সহোযোগিতায় ২০১২ সাল থেকে আমি এই গুরু দায়িত্বে আসি৷
প্রিয় ইউনিয়নবাসী
আগামীতে যদি আমার নেতা জননেতা সেলিম ভাই পুনরায় আমার ওপর আস্থা রাখেন। আমার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে গঠিত মনোনয়ন বোর্ডে আমার জন্য সুপারিশ করেন বা আমাকে আবার মনোনয়ন দেন তাহলে আমি হয়তো আরেকবার চেয়ারম্যান হিসেবে আপনাদের সেবা করতে পারবো ইনশাআল্লাহ। আমি যদি আবার চেয়ারম্যান নাও থাকি তাহলেও আপনাদের পাশে থাকবো আজীবন ইনশাআল্লাহ৷
আমি আপনাদেরই মানুষ৷ পরিশেষে নিজড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সুযোগ্য নেতৃবৃন্দ ও জেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত নেতৃবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি৷
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
মোঃ আজিজুর রহমান সরদার
চেয়ারম্যান, ১৩ নং নিজড়া ইউনিয়ন পরিষদ, গোপালগঞ্জ সদর গোপালগঞ্জ