নৌকার মাঝি হয়ে রাজানগর ইউনিয়নবাসীর সেবা করতে চান : চেয়ারম্যান কামাল হোসেন হাদী

27

আরিফুর রহমান সেতু, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ১ম ধাপ শেষে ইতিমধ্যেই ঘোষণা হয়েছে ২য় ধাপের তফশিল, প্রস্তুতি চলছে ৩য় ধাপের তফশিল ঘোষণার। উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়ন। গতবারের ন্যায় এবারেও দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। তারই ধারাবাহিকতায় জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ। ৩নং রাজানগর ইউনিয়নে ২০১৬ সালে আনারস প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করে গত ৫ বছর সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন চেয়ারম্যান মোঃ কামাল হোসেন হাদী।  ইউনিয়নের সৈয়দপুর, গোপীনাথপুর , তেঘরিয়া, রাজানগর, ভাড়ারিয়া, নয়ানগর, মধুপুর, বাঐখোলা সহ ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামেই লেগেছে উন্নয়নের ছোয়া যা বদলে দিয়েছে ইউনিয়নের জীবনযাত্রার মান। রাস্তা ঘাট থেকে শুরু করে ব্রীজ কালভার্ট, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বিভিন্ন অসহায়ের ভাতা সমবন্টন নিশ্চিত সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এজেন্ডা বাস্তবায়নে তৃনমূলে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।
এবারের নির্বাচনের প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সাক্ষাৎকারে সি আই এন টিভি ২৪ অনলাইনকে জানান, আসন্ন নির্বাচনে আমি আওয়ামিলীগ থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করতে চাই। কারন এই ইউনিয়নে যে উন্নয়ন গত ৫ বছরে হয়েছে তা এই রাজানগর ইউনিয়নবাসী সাক্ষী। তাদের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে খোলা ময়দানের মাঠ থেকে আজ ইউনিয়ন পরিষদ এর কমপ্লেক্সের নিরাপত্তা নিশ্চিত এর জন্য বাউন্ডারি ওয়াল নির্মান সহ পরিষদের সৌন্দর্য বর্ধন করেছি। আর উন্নয়ন এবং সমন্বয় এর কথা আমি নিজে বলতে চাই না তা এই রাজানগর ইউনিয়নবাসীই জানে। দলীয় মনোনয়ন বোর্ডের নেতৃবৃন্দের এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার চাওয়া আমাকে যাতে আওয়ামিলীগ থেকে নৌকার মাঝি হিসেবে এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেয়া হয়ে। ইনশাল্লাহ নৌকা প্রতীক পেলে এই এলাকায় প্রথমবারের মত ইউনিয়ন পর্যায়ে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে পারবো বলে আশা রাখি।
ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড এর ইউ পি সদস্য মেহের আলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন চেয়ারম্যান খুবই আন্তরিক এবং অভিজ্ঞ। তিনি কাজ আনতে জানেন, এলাকার উন্নয়ন করতে জানেন, সমন্বয় করতে জানেন। তার এই ৫ বছরের দায়িত্বে তিনি কখনোই আমাদের অবহেলা করেননি। প্রতিটি কাজ যাচাই বাছাই করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বরাদ্দ নিশ্চিত করেছেন। এলাকার উন্নয়নে এমন লোকের জনপ্রতিনিধি হওয়াই সকলের কাম্য।