কুমিল্লার ঘটনার জেরে উত্তেজনা : ২২ জেলায় বিজিবি মোতায়েন

25

কুমিল্লার ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। সংঘাতে নিহত হয়েছেন চারজন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ২২ জেলায় বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়াও সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। সেইসঙ্গে র‌্যাব ও পুলিশের টহল বাড়ানো হয়েছে। সাদা পোশাকে সক্রিয় রয়েছেন গোয়েন্দা সদস্যরা। একইভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব প্রতিহত ও তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সাইবার টহল দেয়া হচ্ছে।

কুমিল্লায় ৪১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত একাধিক অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এ বিষয়ে গতকাল দুপুরে উচ্চ পর্যায়ের একটি বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, কুমিল্লার পূজামণ্ডপে ঘটে যাওয়া ঘটনায় কয়েকজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। শিগগিরই তাদের গ্রেপ্তার করা হবে। ইতিমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধান, গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কুমিল্লার ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তের পর বিস্তারিত জানানো হবে। আমরা মনে করছি, স্বার্থান্বেষী মহলের উদ্দেশ্যমূলক কাজ এটি। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এতে কেউ উস্কানি দিলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে। আমরা নজর রাখছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও গুজব ছড়ানো হচ্ছে। যারা এসব অপচেষ্টা করছে ও করবে, তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, কুমিল্লার ঘটনার জেরে সারা দেশের আরও বিভিন্ন জায়গায় এমন ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে চারজন নিহত হয়েছেন। তবে এসব ঘটনায় সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের নিয়োজিত করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুর রহমান জানান, জেলা প্রশাসনের চাহিদার প্রেক্ষিতে এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে দুর্গাপূজার নিরাপত্তা রক্ষার্থে বিভিন্ন জেলায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এরমধ্যে কুমিল্লা, ঢাকা বিভাগের নরসিংদী, মুন্সীগঞ্জসহ ২২টি জেলায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চাহিদা থাকলে ঢাকাতেও বিজিবি মোতায়েন করা হবে বলে জানান তিনি।

কুমিল্লা থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় ৪১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শহরে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। গতকাল সকালে কুমিল্লায় যান আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি’র নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল। আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও বিদ্যুৎ জ¦ালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ওয়াসিকা আয়েশা খান এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আঞ্জুম সুলতানা সীমা, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেনসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং স্থানীয় প্রশাসন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বিকালে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করাসহ জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান ও পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ধর্মীয় অবমাননা, ডিজিটাল নিরাপত্তা ও ভাঙচুরের অভিযোগে চারটি মামলা করেছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের সাংগঠিনক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি সাংবাদিকদের বলেন, একটি চক্র দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে দেশকে পিছিয়ে ফেলার ষড়যন্ত্র করছে, তারই অংশ হিসেবে কোরআন শরীফকে টেনে এনে একটি অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চক্রান্ত হয়েছে। পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, আদর্শ সদর উপজেলার রঘুরামপুর গ্রামের মৃত আবদুল করিমের ছেলে মো. ফয়েজ (৪১)সহ ৪১ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনা পরিকল্পিত, না হয় কুমিল্লায় এ ঘটনার পর অন্যান্য স্থানে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে কেন। প্রতিটি ঘটনার জন্য মামলা হবে এবং অপরাধী যেই হোক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানান তিনি। পূজামণ্ডপের এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। গত বুধবার রাতে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের নির্দেশে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. সায়েদুল আরেফিনকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অপর দুই সদস্য হচ্ছেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম. তানভীর আহমেদ ও আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিয়া আফরিন। কমিটিকে তিনদিনের মধ্যে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।