হাসানপুর ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে রুপান্তরিত করতে চাই – মনিরুজ্জামান মনি

58
আরিফুর রহমান সেতু:  সিনিয়র স্টাফ্ রিপোর্টার
সারাদেশের ন্যায় যশোরের কেশবপুর উপজেলাতেও বইছে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী হাওয়া। উপজেলার  ১১নং হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করতে যাচ্ছেন সাবেক ছাত্র ও যুব নেতা বিশিষ্ট সাংবাদিক মনিরুজ্জামান মনির। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই এলাকাবাসীর মধ্যে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ, কে হবে আগামীর জনপ্রতিনিধি। এলাকায় সরেজমিনে দেখা যায় চায়ের দোকান শুরু করে ব্যবসায়ী, শিক্ষক, শ্রমিক, ছাত্র থেকে আবাল বৃদ্ধ
 বণিতা, মা- বোন সকলেই চাইছেন একজন সদা স্পষ্টবাদী, অন্যায়ের প্রতিবাদকারী, গরীব অসহায় মানুষের আস্থাভাজন ব্যক্তিকে যার কাছে হাসানপুর বাসী বিভিন্ন সমস্যায় ছুটে যেতে পারেন,সমস্যার সমাধান পাবেন । ঠিক তেমনই একজন মানুষ মনিরুজ্জামান মনি যিনি শুধু সাংবাদিক নন, তিনি  কেশবপুরের গর্ব। হাসানপুর  ইউনিয়নের বারোটি গ্রামের সকল শ্রেনীপেশার মানুষের  পরামর্শ নিয়ে তাদের সুখ দুঃখের কথা ও বিভিন্ন অভিযোগ শুনছেন, তাদের কাছ থেকে  মতামত নিচ্ছেন কিভাবে আগামী দিনে একটি সুন্দর সুশৃংখল, মডেল একটি ইউনিয়ন পরিষদ গড়ে তোলা যায় সে ব্যাপারে আলোচনা করছেন । সি আই এন টিভি ২৪ অনলাইনের প্রতিবেদকের কাছে সাক্ষাৎকারে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী  সাংবাদিক মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ১১ নং হাসানপুর ইউনিয়ন থেকে সমস্ত অন্যায় অত্যাচার দূর হোক, সমাজের সাধারণ মানুষ গুলো  তার ন্যায্য অধিকার ফিরে পেতে চায়। কেউ যেন তার প্রাপ্য হক থেকে বঞ্চিত না হয় তার জন্য আমি কাজ করে যেতে চাই। এ ইউনিয়ন বাসী আমাকে যেভাবে বুকে আগলে নিয়েছেন আমি তাদের ভালোবাসার কাছে ঋণী, আমি তাদের এই ঋণ কখনো শোধ করতে পারব না কিন্তু তাদের সুখে দুঃখে পাশে থাকবো এই ওয়াদা করতে পারি। প্রিয় হাসানপুরবাসী আমাকে সুযোগ দিলে ইউনিয়নের সকল মানুষকে নিয়ে একটি সুন্দর সুশৃংখল মডেল ইউনিয়ন পরিষদ গড়ে উঠবে ইনশাআল্লাহ।
এ সময় ভোটার সহ তিনি তার নিজ গ্রাম, মহাদেবপুর ও আওয়াল গাতি গ্রামের প্রতিটি মানুষের বাড়ি গিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন । স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, স্থানীয় বিশিষ্টজন, ছাত্র,শিক্ষক, ইমাম, ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সাবেক ও বর্তমান জনপ্রতিনিধিদের  সাথে তিনি মতবিনিময় করেন তিনি তার গণসংযোগ কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন বলে জানান।