নৌকা উন্মুক্ত থাকায় জমে উঠেছে শরীয়তপুরের চতুর্থ ধাপের ইউ পি নির্বাচন

28
স্টাফ রিপোর্টার/মোঃ জাকারিয়াঃ
———————————————-
আগামী ২৬ ডিসেম্বর আসন্ন চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জমে উঠেছে শরীয়তপুরের নির্বাচনের মাঠ। ২৪ ডিসেম্বর রাত ১২ টায় শেষ হচ্ছে প্রচার প্রচারনা তাই শেষ সমায়ের প্রচারে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন প্রার্থীরা। জেলার দুই উপজেলায় মোট ১৯টি ইউনিয়নে হচ্ছে এ ভোট।আর নির্বাচন জমে উঠার প্রধান কারন হচ্ছে নৌকা প্রতিক উন্মুক্ত থাকায়। উক্ত নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করলেও এ সকল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে একাধিক স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা অংশগ্রহন করেছেন। সরেজমিনে ঘুড়ে নির্বাচনি এলাকার বিভিন্ন ভোটারদের সাথে কথা যানা যায়, প্রতিটি ইউনিয়নে তিনের অধিক প্রার্থী থাকায় ত্রিমুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। আর এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সাধারন ভোটারদের মাঝেও দেখা যায় ব্যাপক উৎসাহ ও উন্মদনা।
প্রতিক না থাকার কারনঃ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অনেক থাকার জন্য আর নির্বাচন কালিন সংঘাত-সহিংসতার রোধ করার জন্য মনোনয়ন উন্মুক্ত রাখা হয়।এরুপ পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের অনুরোধে আর জেলা আওয়ামী লীগের হস্তক্ষেপে প্রতিক বিহীন হচ্ছে এ নির্বাচন। আর এর মূল কারিগর হচ্ছে শরীয়তপুরের ২ও ৩ নং আসনের এম পি মহোদয় গণ। পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম এম পি ও নাহিম রাজ্জাক এম পি মহোদয় এর পরিপক্ব চিন্তা ভাবনার প্রতিফলন।
জনগনের মতামতঃ সাধারণ ভোটরা বলছেন দলীয় মার্কা না থাকায় জমে উঠেছে নির্বাচন ভোট দেওয়ার জন্য  সবাই অধির আগ্রহের কথা স্বীকার করেছেন। তাড়া আরও বলেন জাতীয় নির্বাচন ও উপজেলা নির্বাচনে অনেকে ভোট দিতে যাননি আর যারা গিয়েছে তাদের মধ্যে কেউ,কেউ ভোট দিতে পারেননি। তাই স্থানীয় এ নির্বাচনে তারা ভোট দেওয়ার জন্য উন্মোখ হয়ে আছেন।তার পাশাপাশি প্রশাসন ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট  সকলের কাছে অনুরোধ জানান আগামী ২৬ তারিখ তারা যেন সঠিক ভাবে ভোট দিতে পারেন এবং একটি অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দেওয়ার আবেদন করেন।