সংবাদ প্রকাশ করায় দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের

39
আলী আকবর সম্রাট।।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নামে সংবাদ প্রকাশ করায় ক্ষুব্ধ হয়ে সাংবাদিকের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ করা হয়েছে। গত ৬ জানুয়ারী ওই বিদ্যালয়ের কথিত সভাপতি আক্তার হোসেন মল্লিক অভয়নগর থানায় এ অভিযোগ দায়ের করেন।
জানা গেছে অভয়নগর উপজেলার দুইজন সাংবাদিক এস আর শুভরাড়া রানাগাতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে নিয়মিত  উপস্থিত না হয়ে বেতন উত্তোলন  শিরোনামে গত ৫ জানুয়ারি দৈনিক কালজয়ী পত্রিকায় ও  ৬ জানুয়ারী খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক খুলনাাঞ্চল  “অভয়নগরে বছরের প্রথম ৫ দিনের ৪ দিন বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত প্রধান শিক্ষক” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয় । ওইদিন ৫ জানুয়ারী সাংবাদিকরা বিদ্যালয়ে যেয়ে প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয়ে পাননি। এ সময়ে হাজিরা খাতায়ও ৪ দিন স্বাক্ষরও নাই। এ সংক্রান্ত সংবাদ পরিবেশন করেন। এরপর ক্ষুব্ধ হন ওই বিদ্যালয়ের বিতর্কিত সভাপতি আক্তার হোসেন মল্লিক। তিনি খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক খুলনাঞ্চল পত্রিকার ষ্টাফ রিপোর্টার রিপন ও দৈনিক কালজয়ী পত্রিকার রিপোর্টার মোহাম্মদ আলীর নামে চাঁদাদাবীর অভিযোগ করেন।
ওই বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি গোলাম নবী জানান,  বিদ্যালয়ের সভাপতি বৈধভাবে নির্বাচিত হয় নাই। যে কারণে অভয়নগর মিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা করা হয়েছে। মামলা নম্বর ৫৯৫/২১। আদালত ওই মামলার বিবাদীগনের বিরুদ্ধে অস্থায়ী নিষেজ্ঞায় ৭ দিনের মধ্যে কারণদর্শানো আদেশ দিয়েছেন।
ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন “ আমি বিদ্যালয়ের কাজে বাইরে ছিলাম। আমি নিয়মিত বিদ্যালয়ে আসি। কোন সাংবাদিক আমার কাছে চাঁদা দাবী করে নাই। সভাপতির নিকট চেয়েছেন কিনা আমার জানা নেই।
 বিতর্কিত ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি আক্তার মল্লিক জানান “ আমার নিকট সরাসরি কোন সাংবাদিক চাঁদা দাবী করেন নাই, মোবাইল করেছিলো। কত টাকা চাঁদা দাবী করেছিল তা তিনি বলতে পারেন নি।
সংবাদ প্রকাশ করায় ক্ষুব্ধ হয়ে সাংবাদিকদের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ করায় নওয়াপাড়ায় সাংবাদিকদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সাংবাদিকরা ওই বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে না এসে বেতন ভাতা উত্তোলনের সঠিক তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন।